1. azad@medisheba.com.bd : admin :
  2. ashraful294@gmail.com : Ashraful Siddiquee : Ashraful Siddiquee

প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস

বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর নির্বাচনী এলাকার মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব অধ্যাপক মোঃ আব্দুল কুদ্দুস এমপি মহোদয়ের সক্রিয় পৃষ্ঠপোষকতায় অত্র এলাকার কিছু শিক্ষানুরাগী ব্যক্তি, উচ্চ শিক্ষিত যুবক, তৎকালীন ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বার, কৃষক ও খেটে খাওয়া মানুষের উদ্যোগে উচ্চ শিক্ষার লক্ষ্যে ১৯৯৬ সালে নাটোর জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল জোনাইল গ্রামে ঐতিহাসিক বড়াল নদীর তীর ঘেঁষে এই প্রতিষ্ঠানটি স্থাপিত হয়।
প্রতিষ্ঠাকালীন অধ্যক্ষ জনাব আবুল আছর মোঃ শফিউজ্জামানের যোগ্য নেতৃত্বে এই প্রতিষ্ঠানটি জন্মলগ্ন থেকে সর্বদিক দিয়ে সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হয়ে আসছে। ১৯৯৬-৯৭ শিক্ষাবর্ষে ১০৯ জন শিক্ষার্থীর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির মধ্য দিয়ে কলেজটির শুভ যাত্রা শুরু হয়। ১৯৯৮ইং সালে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড রাজশাহীর অধীনে নয় জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে এবং এর মধ্যে ০৩ জন শিক্ষার্থী কৃতকার্য হয়। বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন বিষয়ে(এমপিও/নন-এমপিও)৫৮ জন যোগ্য ও দক্ষ শিক্ষক কর্মরত আছেন এবং ১ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত আছেন। শিক্ষকদের আন্তরিকতা ও সার্বিক সহযোগিতার কারণে সকল পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল খুবই ভালো।
রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক ১৯৯৬-৯৭ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণীতে শিক্ষার্থী ভর্তির অনুমতি পায় এবং কাঠের বেড়া ও টিনের ছাপড়া ঘরে পাঠদান কার্যক্রম শুরু হয়। কলেজটি ৩০/০৬/১৯৯৭ইং সালে একাদশ শ্রেণীর একাডেমিক স্বীকৃতি লাভ করে এবং ৩০/০৬/১৯৯৮ইং সালে দ্বাদশ শ্রেণীর একাডেমিক স্বীকৃতি লাভ করে। ২০০১ সালের ২৮ মার্চ উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে এমপিওভুক্তি শুরু হয় এবং এর মাধ্যমে অধ্যক্ষসহ ১৯জন শিক্ষক কর্মচারী সরকারি বেতন ভাতার আওতাভুক্ত হন।
এই কলেজের প্রতিষ্ঠা লগ্নে বিজ্ঞান বিভাগের অনুমোদন ছিল না। ২০০৪ইং সালে উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের সাথে বিজ্ঞান বিভাগ অন্তর্ভুক্ত হয়। কলেজটি ২০০৫ সালে ডিগ্রী (পাস) কোর্সের অধিভুক্তি লাভ করে। ২০০৬ইং সালে ডিগ্রি পাস কোর্সের সাথে বি.বি.এস শাখা এবং ২০১৭ইং সালে বি.এস.সি শাখার অধিভুক্তি  পায়। ২০০৪-০৫ শিক্ষা বর্ষ হতে ডিগ্রী (পাস) কোর্সে শিক্ষার্থী ভর্তি শুরু হয়।
২০০৯ইং সালে ডিগ্রি (পাস) কোর্সে এমপিও ভুক্তির  আওতায় আসে এবং তার মাধ্যমে ডিগ্রি (পাস) কোর্সে কর্মরত শিক্ষক/কর্মচারী সরকারি বেতন ভাতার আওতায় আসেন।
বর্তমানে কলেজের ভবন সংখ্যা ০৫ টি। দুইটি চারতলা ভবন, একটি ত্রিতল ভবন এবং তিনটি ১ তলা ভবন রয়েছে। কলেজের সুবর্ণ জয়ন্তী জাঁকজমকপূর্ণভাবে ২০২১ সালে অনুষ্ঠিত হবে ইনশাআল্লাহ।

© All rights reserved © 2020 jdc
Design & Developed BY Azadul Bari